Monday, October 7, 2019

রণেশ রায় এর কবিতা


রণেশ রায় এর  কবিতা


আজও টেনে চলি


আজও আমি টেনে চলি গণরথ
তুমি সারথি সে রথের
দেখাও আমাকে পথ।

আমি সাঁতরে চলি সাগর জলে
উজানে ঢেউয়ে ঢেউয়ে
তুমি প্রবাহ সে সলিলে।

চড়াই উৎরাই ধরে
পৌঁছে যাই উত্তুঙ্গে
তুমি প্রত্যয় পাহাড়ে।

বিজন জঙ্গলে কান্না ভেসে আসে
আজও অশ্রু ঝরে বাতাসে
তুমি কাঁদ বিরহে।

দিনান্তে সূর্য অস্তাচলে
তুমি অপেক্ষায়
কখন সন্ধ্যাদীপ জ্বলে।

রাতের শেষ প্রহরে
তুমি থাক জেগে
সূর্য উঠবে ভোরে।




আসবে কখন


জীবনের মহুয়া বনে
আজের এই ভরা যৌবনে
আমি অপেক্ষায় আসবে কখন
এ দুয়ার প্রান্তরে
বাতাসের গুঞ্জনে সূর্যের কিরণে
তুমি আসবে জনকোলাহলে
সমুদ্রের ঢেউয়ে ঢেউয়ে মেঘের গর্জনে
মিলবে এসে লড়াইয়ের ময়দানে
পাব তোমাকে নিবিড় আলিঙ্গনে
নৈরাজ্যের অবসানে
নতুন ভৈরোর আগমনে।



কবিতা আমার

যখন অন্ধকার ঘনায়
আমি হারাই না পথ
কবিতা আমায় পথ দেখায়।

যা থাকে আমার বলার
আমি বলি আমার কবিতায়
কবিতায় চিনে নিও আমায়।।

খুঁজে পাবে আমায়
সুর ছন্দ লয়ে
আমি থাকি আমার কবিতায়।

কবিতা আমার পরিভাষা
লড়াই আমার কবিতায়
কবিতা জনতার বারোমাস্যা।।

বিরহ মিলন আমার কবিতায়
কবিতা আমার মননে
কবিতা আমার চেতনায়।

কবিতা প্রেম আমার
নিশান হাতে আমি কবিতায়
কবিতা আমার হৃদয় দরজায়।।

আমার প্রত্যয় আমার কবিতায়
কবিতা আমার হৃদস্পন্দন
বাঁচি আমি কবিতায়।