Monday, September 9, 2019

জানি চিনব ঠিক // রণেশ রায়


জানি চিনব ঠিক   //   রণেশ রায়



পরিণীতা, মুখ তোমার শ্রাবণের মেঘ
স্থির তোমার সেদিনের দিশা
চোখে দেখেছি গ্রীষ্মের দহন
চুল তোমার নিস্তব্ধতার নিশা।

মনে নেই শেষ দেখেছি কখন,
ক্লান্তিহীন সেই অবিরাম যাত্রা পথে
পথিক আমরা কত পথ হেঁটেছি তখন,
সেই আমাদের পথ চলা দুজনার
সমুদ্রতট থেকে সমভূমি হয়ে গিরিপথ
এ প্রান্ত থেকে ওপ্রান্ত, শেষ ছিল না চলার।

অর্ধশতক  পর যদি আবার দেখা হয়,
এখন হয়তো মুখ মাঘের সকাল
দেহে তোমার সময়ের ক্ষয়,
চোখে দেখি সূর্যাস্তের বিকাল
চুল তোমার তুষারের ঝলক,
কপালের ভাঁজে আজ বার্ধক্যের প্রজ্ঞা
মনে হয় আজও তোমার ইশারায় চমক।

জানি না আজ চিনতে পারব কি না
চেহারায় না চিনলেও চিনব তোমায় চলায়,
ভুলিনি তোমায়, তুমি যে আমার চেতনায়
বসব আবার মুখোমুখি দুজনায়,
সূর্যের ফুলকিতে দেখাদেখি
আগামীর ওই শুভ্র সকালে
পরস্পর আবার চোখাচোখি,
বুকটা আমার করে ধিক ধিক
চিনতে পারব না ভেবেও
তোমাকে আবার চিনেছি ঠিক।