Sunday, August 11, 2019

আফজল আলির কবিতা

 AFZAL ALI


এখন দরকার মানুষের প্রেম      

আফজল আলি 

হিংসার বনে ভালোবাসার চাষ করলে নতুন করে কি ফুল কুঁড়ি ফোটে 
আজ হৃদয় সরে গেছে মানুষের থেকে 
তাকে মানায় না এই আদিমতা 
যদি এমন হবে মানুষ-ই পালিয়ে যাচ্ছে 
বুকে মায়া নেই ,দরদ দিলের নিশান নেই 
তাহলে কে দেবে বিচার 

মনের পাতাগুলো উড়ছে ,মানুষে মানুষে বিভেদ 
কোনো এক ঝড়ের রাতে ভালোবেসে কবিতার খাতা , আন্দোলিত ছিলাম 
কেউ কথা রাখেনি , আমিও না , ওরাও না
এগিয়ে দিয়ে সরে গেছে ধূর্ত শিয়াল 
এসেছে শিকারের ফাঁদ নিপুণ নৈপুণ্য দাঁতে
তাকে জানিয়ে দিও ঝলসে গেছে বুক আঘাতে আঘাতে 

অনেক দিন বৃষ্টি নেই , মেঘ বন্ধ্যা-বাসিনী 
অচেনা গাঁয়ের দৈর্ঘ্য ও প্রস্থ মেপে লুঠ করেছে বাইক বাহিনী 
কেন্দ্রে তখন বিধিবদ্ধ পাপ
ওদের মুখে মুখোশ ছিল সাঁটা 

দিন ঢলে পড়ছে সন্ধের দিকে 
একের সাথে দশের এই লড়াইয়ে, 
দেবতারা আসেনি প্রকাশ্যে কখনো , অলক্ষ্যেও আড়াল তাদের ,
এখন দরকার মানুষের প্রেম ;
হৃদয় থেকে ভালোবাসা উবে গেলে আবেগহীন পৃথিবী ধ্বংস হবে না তো 



শরীরে আলজাইমার         

 আফজল আলি

আকাশে মেঘ জমেছে গলায় ক্যান্সারের জ্বালা
শিক কাবাব খেও না তুমি, আরো তীব্র শোনো শরীরের আলজাইমার
বারুদ ফুটছে , মন নাগাল্যান্ড
বাষ্প চাপা দিচ্ছে জীবন আদপে বেসামাল

ক্ষয়িষ্ণু রক্ত সঞ্চার মালিকানার ঊর্ধ্বে
প্রবল ছাউনির সমারোহ এভাবেও ফিরে আসা যায়
বাক্য বাতাসে ওড়ে, চাওয়া পাওয়ার মধ্যে
এক ডজন ভূতের গল্প
এখন তো নিয়ন বাতির আত্মপক্ষ সমর্থন নেই
দুপুরে তাই খিদে পেলে খুব কী করি কী করি
বোধের কথা হাঁসের ডিম পুনরায় চেয়ো না যেন

ধুলো মাখা পাপ নির্জনে কাঁদছে
নিজের সাথে নিজের মুখোমুখি
গতকাল ছাদের নীচে আকাশের বাষ্প ঢুকেছিল
যেন কাঁদছিলাম খুব , কাঁদছিলাম খুব
বিপন্ন হওয়ার থেকে আরো কত নিরুপায় 



মৃত্যু সমাগত  

 আফজল আলি 

প্রথমে ভেবেছি বাঁ-হাত 
এবং ভাবছিলাম ওগুলো আসলে কী 
দুঃখ মোচড় দিচ্ছে 
পূর্ববর্তী অনেকটাই আমি জানতাম না 
কীভাবে শব্দগুলো প্রিজম আকার নিচ্ছে 
ক্ষমতার চিহ্ন স্বপ্ন ধরে রাখে 
তাদের ভালো লেগেছিল জেনে মিথ্যা এ শোক 

মানুষ সুখ চায় 
মানুষ সুখ চায় 
মানুষ সুখ চায়
মানুষ রাত্রে ঘুমায় 
কেন না জীবন থেকে পালিয়ে গিয়ে প্রতিদিন ভাঁড়ার ঘরে পূর্বপুরুষদের মুখ দেখি 
মৃত্যু সমাগত , ঘাসের উপর বুলিয়ে নিই ব্রাশ 
অতঃপর মনে হতে থাকে আকাশ বুঝি নিঃস্ব করে দিল এই 

ওহ্ কী অদ্ভুত , ফিসফাস শব্দে বাতিল হওয়া কবিতাগুলো চাবুক নিয়ে দাঁড়িয়েছে 
ট্রেনে বাসে উপভোগ করছি পরস্পর থেকে দূরে 
বাঁচতে হলে এদেরকেই সাবাড় করতে হবে 
যদি জিজ্ঞাসা করো প্রতি রাতে প্রেতাত্মারা আসে কেন 
তাহলে চিৎকার করে বলব আমাদের শোষণ থেকে মুক্ত করে দাও
আমাদের খুন করে দিও না , আমাদের বাড়িতে রয়েছে ওরা