Tuesday, January 22, 2019

টুকিটাকি // ছোটবেলা - ১৪ // বন্য মাধব

টুকিটাকি // ছোটবেলা - ১৪ // বন্য মাধব

 
ছোটবেলায় আমরা যেমন ভূতকে ভয় পেতাম তেমনি ভয় পেতাম জলকে। জলে যে জোঁকোবুড়ি থাকে, যে বুড়ি ছোট বড় কাউকে রেয়াৎ করে না, যাকে ইচ্ছা জলের তলায় আটকে রাখে, ছোটবেলা থেকেই এ গল্প শুনে আসছি। আমরা যে দু' একবার তার শিকার হইনি তা' নয়। একবার ভোর বর্যায় আমাদের ঘেরের পুকুরে এক এক করে সাঁতার কেটে এপার ওপার হচ্ছি। হঠাৎ আমি সাঁতার কাটতে গিয়ে হাবুডুবু খাচ্ছিলাম। মনে হচ্ছিল কে যেন পা ধরে রেখেছে। ক'ঢোক জল গিলে কোনক্রমে পাড়ে এলাম। এসে দেখি থাই এ ছড়ার দাগ।
 
আর একবার আমাদের বাড়ির পিছনের এক মেঠো পুকুরের ঘটনা। নতুন করে পুকুরটা কাটানো হয়েছে। চৌকো চৌকো ভাগ করে। ক'বার ভারী বৃষ্টির পর চৌকোগুলি জলে ভরে গেছে। আমরা দলবেঁধে জলে ঝাঁপাচ্ছি আর উঠছি। হঠাৎ আমার পায়ে জীবন্ত কিছু ঠেকলো। একলাফে সবাই ডাঙায়। আর নামি! খেলা ভঙ্গ।
 
আর একবার পাণিখালের এমন চৌকো চৌকো কাটা চৌবাচ্চার জলে হুড়োহুড়ো খেলছি। মহা ফুর্তি! খেলায় একেবারে মশগুল। হঠাৎ বাঁচা বাঁচা চিৎকার করতে করতে এক দিদি দৌড়ে আসছে। সবার জ্ঞান ফেরে চিৎকারে। দেখি কী, একটা চৌবাচ্চা থেকে দু'টো হাত উপরে উঠছে আর নামছে। কিন্তু আমাদের পা যেন পাথর! চোখের নিমেষে দিদিটা ঝাঁপিয়ে পড়ে ওকে তুললো। বড়রাও এসে গেছে। পেটে চাপ দিয়ে জল বের করলো। তারপর তার জ্ঞান এল। এবার শুরু হল আমাদের বকাবকি।
 
(চলবে)