বাংলা ভাষার ই-ম্যাগাজিন । যে কোনো সময় লেখা পাঠানো যায় । ই-মেলে লেখা পাঠাতে হয় ।

Tuesday, January 15, 2019

রণেশ রায়ের ছড়া ও কবিতা

রণেশ রায়

মায়ের কোল


কথায় কথায় ছড়া কাটি,
অজান দেশে চলি
গুটি গুটি হাঁটি
ছড়ায় ছড়ায়  বলি।
ছড়া আমাদের হাসায়
শোন হাসির ঢল,
ছড়াই আবার কাঁদায়  
বয় কান্নার রোল,
ছড়া আমাদের মাসি-পিসি
ছড়া মায়ের কোল।
.
.
মজলিস
খেঁকশেয়ালি দাঁড় বায়
বাঁদর বসে তবলা বাজায়
নদীতে ভাসে ভুটভুটি
ভোঁদর বাজায় ডুগডুগি।
হাতী চলে শুর তুলে
ভালুক নাচে কাঁচা খুলে
শেয়াল ডাকে হুক্কা হুয়া
বেড়াল খায় চুয়া ।


.      
পালিয়ে চল
.
দরজায় ধাক্কা খট্ খট্
মাঘে ঠান্ডা ঠক্ ঠক্
জিভ করে লক্ লক্
গন্ধ নাকে টক্ টক্
দাদু হাটে গট্ গট্
পিঠে লাঠি মট্ মট্
করিস না আর ফট্ ফট্
পালিয়ে চল চট্ পট্।

.
মামা আমার
খামখেয়ালি মামা  আমার
খেয়াল একটু করো
তা নইলে হোঁচট খাবে
ব্যথা লাগবে বড়
মামী আমার কষ্ট পাবে
সে তো তুমি জানো
তাই তো বলি তোমায় আমি
   আমার কথা মানো ।   

.
মাছ ধরা
পিসে পিসি বনগাঁ বাসি
পুকুর ধারে  ঘর
পুকুরে আছে মাছ মেলা
ছিপ ফেলে ধর I

.
আমি খাই আমি
                
গাছে ফলে কত ফল
লিচু আম জাম
লিচু জাম তোরা খা
আমি  খাই আম।
.
.
নইলে পাবে
টক ঝাল নোন্তা
মশা মাছি বোলতা
খেতে চাও কোনটা
শোন বাজে ফোনটা
জেনে এসো টোটকা
খেতে হয় সবটা
বাদ নয় কোনটা
ঠিক রেখো মাথাটা
নইলে পাবে ঘন্টা।
.
.
সন্ধ্যে হলে
বিকেল হলে খোকা পালায়
করে টই টই
লেখাপড়া শিকেয় ওঠে
লুটিয়ে কাঁদে বই
সন্ধ্যে হলে পড়তে বসে
খেয়ে দই খই।
.
.
খুদে ছড়া গরম বড়া
আয় আয় খুদে ছড়া
ছুটে ছুটে আয়
খাবো আয় গরম বড়া
ভাজছে ভদু রায়।

.
.
ডাকছে নিশি
   পিসিগো পিসি, ডাকছে নিশি!
কিসের আওয়াজ শি: শি:
বাঁশবাগানে বাজছে বাঁশি
ছাদের ঘরে প্যাঁচার হাসি
খাটের নীচে বেজির কাশি
আমি ভয়ে পালিয়ে আসি।
.
.
ঘুমোয় এসে
মিনুকে ডাকে সূয্যিমামা
মিনু যায় দিয়ে হামা,
মামা তাকে গল্প বলে
মিনু ফেরে সন্ধ্যে হলে
ঘুমোয় এসে মায়ের কোলে
উঠবে সে সকাল হ`লে।

.
.
দেখবি আয়
কদম গাছের তলে
স্নান করে খুকু কলে
গাছে দেখ ফুল ফুটে
ভল্লুক ওই আসে ছুটে
বাঁদর বন্ধু বলে,
`গাছে উঠে আয় চলে` ,
ওঠে খোকা তরাং করে
বাঁদর  তাকে লুফে ধরে।
এই ভল্লুক কি চাস
দেখবি আয় সার্কাস।
 .
.
সূয্যিমামা কই
ঊষা এসেছে ভোর হয়েছে
সূয্যিমামা কই ?
সূয্যিমামা মুখ ঢেকেছে
মেঘের কোলে ওই।
.
.
 দেখবি আয়
আয়রে বুকু  দেখবি আয়
খুকু  কেমন দোল খায়
মিনি বেড়াল হেঁটে যায়
তিনটে শালিক দাঁড় বায়
নদীতে ওই এলো বান
নৌকা ভেঙ্গে খান খান।
.
.
আয়রে আয়   
আয় রে আয়  টিয়া
শোনরে  মন দিয়া
কোথায় তোর নাকটা !
খাবি তুই গাট্টা
গায়ে সবুজ কোটটা
লাল তোর ঠোঁটটা।
.
.
অজান দেশে
আমরা দুই ভাই
অজান দেশে যাই
অজান দেশে ভারী মজা
জানার শেষ নাই।
.
.
গাধা  গায়
এগারোজনায় খেলে বল
    রেফারি মাঠে শেয়াল
বাঁদর কাটিয়ে দেয় গোল
   গাধা গায় খেয়াল। 

No comments:

Post a Comment