Sunday, November 11, 2018

দুঃখের সাথে মোর নিত্য সহবাস

talkontalk.com

      শ্যামল কুমার রায়

দুঃখের সাথে মোর নিত্য সহবাস ।
জন্ম হতে আজ অবধি করিনি অন্য
কারোর সাথে বাস ।
শুনেছি তো সুখ ,
দুঃখ চক্রাকারে আসে ,
কোনও কিছুই তো স্থায়ী নয়,
এ ধরিত্রী নিবাসে ।
তাহলে সুখ কেন আসে না
অভিশপ্ত এ জীবনেতে?  
সুখের সাথে ঘর করা কি
পরকীয়া তবে ?
সুখের লেগেই তো সেই
অচিন পাখির খোঁজে !
লুকোচুরি খেলছে যে এ
জীবন মাঝে ।
সুখ বড় মায়াবিনী, ছল
কপট কম শেখেনি ।


সুখও তেমনি খুবই দামী -
কালোর্ত্তীণ হতে আজও শেখেনি ।
চির অতৃপ্ত কামানলে
দগ্ধ সহবাস যত ক্ষণস্থায়ী,
সুখানুভূতিও ততই অস্থায়ী ।
আসে খুব ঘটা করে,
অনেক দুঃখ, কষ্ট দূর করে ,
ভেবে মরি দিন রাত্রি, দুঃখদশা
এবার ঘুচল আমারই ।
অচিরেই ভাঙল ভ্রম ,
ফুরুত করেই সুখ
পাখি উড়ল যখন ।
পরকীয়ায় রতিক্রিয়া
চিরস্থায়ী নয় -
সুখ , সুখ অনুভূতিও
বজায় থাকে না ।
আসলে সুখের ঐ
প্রাণভোমরা যে আত্মসন্তুষ্টি ,
'আরও' নামক মাৎসর্যই
চির দুঃখের কারণটি ।
কার সাথে সহবাস করবে তুমি? -
সুখ না দুঃখ - কে হবে
তোমার শয্যাসঙ্গিনী ?
জড় জগতের যন্ত্রণা
ভুগবে কি তুমি?  
সুখ নামক অচিন
পাখি যদি পরিত্যক্তা হয় ,
নিত্যসঙ্গিনী দুঃখ,
জীবনে জায়গা না পায় ।
নিষ্কাম কর্ম করবে যত ,
জাগতিক বন্ধন
হতে হবে মুক্ত তত ।
তাঁর চরণে সন্নিবিষ্ট মন,
মায়ার বাঁধন হতে মুক্ত তখন ।
কোনরূপ ছলাকলা
ভোলায় না মন ,

জীবনের উদ্দেশ্য
তখন হয় যে সাধন ।